Categories
ব্যায়াম ও খাদ্য নিয়ন্ত্রণ স্বাস্থ্য পরামর্শ

সমস্যার নাম ফ্রোজেন শোল্ডার

কাঁধের সন্ধিতে ব্যথা। হাত ওপরে তুলতে পারেন না। চুল আঁচড়াতে কষ্ট, পেছনে বোতাম লাগানো বা পেছনের পকেটে মানিব্যাগ রাখা অসম্ভব হয়ে উঠছে। এই সমস্যার নাম ফ্রোজেন শোল্ডার। ডাক্তারি নাম অ্যাডেসিভ ক্যাপসুলাইটিস। কেন হয় এই অবস্থা?

কোনো আঘাত বা অস্ত্রোপচারের পর কাঁধের নড়াচড়া কম করা হলে সন্ধিটা জমে যায়। অনিয়ন্ত্রিত ডায়াবেটিস ও পক্ষাঘাতে বা স্ট্রোকের পর এটা খুবই পরিচিত সমস্যা। কাঁধের এই সন্ধি অতিরিক্ত ব্যবহৃত হলেও এমন হতে পারে। আবার অনেক সময় তেমন কোনো কারণ খুঁজে পাওয়া যায় না। তবে যে কারণেই হোক, ফ্রোজেন শোল্ডার পুরোপুরি সারতে অনেক সময় লেগে যায়। সময়মতো চিকিৎসা না নিলে দু-তিন বছর পর্যন্ত ভুগতে হতে পারে। অনেক সময় সন্ধি পুরোপুরি স্টিফ হয়ে যায় বা অকেজো হয়ে যায়। তবে ৯০ শতাংশ ফ্রোজেন শোল্ডার ব্যথানাশক ওষুধ ও ফিজিওথেরাপির মাধ্যমে সম্পূর্ণ সেরে যায়। ফ্রোজেন শোল্ডার নিরাময়ে কিছু পরামর্শ।
: হাতের পেন্ডুলাম মুভমেন্ট করুন। অনেকটা নৌকা বাওয়ার মতো ব্যায়াম।

  • সুস্থ হাতটি দিয়ে আক্রান্ত হাতকে ধরে ওপর দিকে তুলুন, যতটা তোলা যায়। এবার মাথার পেছন দিকে নেওয়ার চেষ্টা করুন। এই ব্যায়ামটা দিনে কয়েকবারই করুন।
  • আক্রান্ত হাত দিয়ে সামনে বাতাসে বৃত্ত তৈরি করুন। যতটা সম্ভব বড় পরিধির বৃত্ত তৈরি করতে চেষ্টা করুন।
  • গোসল করার পর গামছা বা তোয়ালেকে রোল করে দুই হাত দিয়ে ধরে পেছন দিকে পিঠ মোছার চেষ্টা করুন। ওপর-নিচ করতে থাকুন।
  • ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করুন। ব্যথা থাকলে ব্যথানাশক ওষুধ খান চিকিৎসকের পরামর্শে। ব্যথা না কমলে ব্যায়াম করা সম্ভব হবে না।
  • বাড়িতে ব্যায়াম করে না কমলে ফিজিওথেরাপি নিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *